Skip to content

কোলয়েডীয় দ্রবণ | প্রকৃত দ্রবণ | প্রলম্বন কি?

কোলয়েডীয় দ্রবণ প্রকৃত দ্রবণ প্রলম্বন কি.jpg

 

প্রকৃত দ্রবণ কাকে বলে?

প্রকৃত দ্রবণ ( True Solution ) : কোনো দ্রাবকে মিশ্রিত দ্রাব কণার ব্যাস 10^-8 সেমি বা তার কম হলে সেটি দ্রাবকের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে মিশে গিয়ে যে সমসত্ত্ব মিশ্রণ উৎপন্ন করে , তাকে প্রকৃত দ্রবণ বলে। যেমন জলের মধ্যে চিনি বা সাধারণ লবণ দ্রবীভূত হয়ে প্রকৃত দ্রবণ গঠন করে।

প্রকৃত দ্রবণের বৈশিষ্ট্যগুলি

প্রকৃত দ্রবণের বৈশিষ্ট্যগুলি নিম্নরূপ :

  • সমসত্ত্বতা : প্রকৃত দ্রবণ হল দ্রাব ও দ্রাবকের স্বচ্ছ ও সমসত্ত্ব মিশ্রণ অর্থাৎ, দ্রবণের যে-কোনো অংশের গঠন, উপাদান ও ধর্ম একই রকম হয়।
  • দ্রাব কণার আকার : প্রকৃত দ্রবণে দ্রাবের কণাগুলি এতই ক্ষুদ্র হয় ( ব্যাস ≤10-8 cm ) যে, তাদের খালি চোখে তো নয়ই এমনকি উচ্চ শক্তিসম্পন্ন অণুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যেও এদের দেখতে পাওয়া যায় না।
  • কণাগুলির ভেদ্যতা : দ্রবণে দ্রাবের কণাগুলি ফিলটার পেপার ও পার্চমেন্ট পেপারের মধ্যে দিয়ে সহজেই চলাচল করতে পারে।

কোলয়েডীয় দ্রবণ (Colloidal Solution)কাকে বলে ?

কোলয়েডীয় দ্রবণ (Colloidal Solution): 10^-5 সেমি থেকে 10-7 সেমি ব্যাসযুক্ত কোনো অদ্রাব্য কণা যখন কোনো দ্রাবকের মধ্যে ইতস্তত ভেসে বেড়ায়, কিন্তু দ্রবীভূত হয় না, তখন সেই অসমসত্ত্ব এবং দ্বি-দশাবিশিষ্ট মিশ্রণকে কোলয়েডীয় দ্রবণ বলে। উদাহরণ – দুধ , সাবানের ফেনা , রক্ত ইত্যাদি কোলয়েডীয় দ্রবণ।

জেনে রাখো : বিজ্ঞানী টমাস গ্রাহাম Colloid নামকরণ করেছিলেন । গ্রিক শব্দ Kolla = আঠা , iodos = সদৃশ ।

কোলয়েডীয় দ্রবনের বিভিন্ন দশা

কালায়ডীয় দ্রবণের দশা : কোলয়েডীয় দ্রবণের দুটি দশা বর্তমান বিস্তৃত দশা ও বিস্তার মাধ্যম৷

  • বিস্তৃত দশা ( Dispersed Phase ) : কোলয়েডীয় দ্রবণে 10-5 সেমি থেকে 10-7 সেমি ব্যাসবিশিষ্ট যে পদার্থগুলি প্রলম্বিত অবস্থায় থাকে , তাদের বিস্তৃত দশা বলে।
  • বিস্তার মাধ্যম ( Dispersion medium ): কোলয়েডীয় দ্রবর্ণে যে মাধ্যমে কোলয়েড কণাগুলি প্রলম্বিত অবস্থায় থাকে , তাকে বিস্তার মাধ্যম বলে। যেমন জলের মধ্যে ফ্যাটজাতীয় কণাগুলি অসমসত্ত্বভাবে মিশে দুধ তৈরি করে। এখানে ফ্যাটজাতীয় কণাগুলি হল বিস্তৃত দশা এবং জল হল বিস্তার মাধ্যম।

কোলয়েডীয় দ্রবনের বৈশিষ্ট্য

  • অসমসত্ত্ব মিশ্রণ: বিস্তার মাধ্যম ও বিস্তৃত দশা পরস্পরের সঙ্গে দ্বি – দশাবিশিষ্ট অসমসত্ত্ব মিশ্রণ উৎপন্ন করে।
  • দ্রাব কণার আকার : কোলয়েডীয় দ্রবণে দ্রাব কণাগুলির ব্যাস 10-5 সেমি থেকে 10-7 সেমি – এর মধ্যে হয়। দ্রাবের কণাগুলি খালি চোখে এবং সাধারণ অণুবীক্ষণ যন্ত্রে দেখা না গেলেও পরাঅণুবীক্ষণ যন্ত্রে দৃশ্যমান । দ্রবণে দ্রাবের কণাগুলি সাধারণ ফিলটার কাগজের মধ্যে দিয়ে যেতে পারে কিন্তু পার্চমেন্ট কাগজের মধ্যে দিয়ে যেতে পারে না।
  • দ্রবণের স্থায়িত্ব : কোলয়েডীয় দ্রবণ স্থায়ী প্রকৃতির হয়। তবে বিশেষ কিছু শর্তের উপস্থিতিতে (তাপ দিলে , তড়িদ্‌বিশ্লেষ্য পদার্থ যোগ করলে) কোলয়েডীয় দ্রবণে দ্রাবের কণাগুলি থিতিয়ে পড়ে।
  • ব্রাউনীয় গতি : কোলয়েড কণাগুলি বিস্তার মাধ্যমে ইতস্তত বিক্ষিপ্তভাবে অবিরাম ছুটে বেড়ায়। ফলে , কোলয়েড কণাগুলি ব্রাউনীয় গতি প্রদর্শন করে।
  • টিল্ডাল প্রভাব : কোলয়েডীয় দ্রবণের মধ্যে দিয়ে আলোকরশ্মি পাঠালে কোলয়েড কণাগুলি আলোকরশ্মির বিচ্ছুরণ ঘটায়। ফলে, আলোর গতিপথ দৃশ্যমান হয়। তাই কোলয়েড কণাগুলির টিন্ডাল প্রভাব দেখা যায়।
  • অধিশোষণ ক্ষমতা : কোলয়েড কণাগুলির অধিশোষণ ক্ষমতা আছে। কোনো কোনো কোলয়েড কণা পরা – তড়িদ্ধর্মী আয়ন অধিশোষণ করে পরা – তড়িদাহিত হয়। অপরপক্ষে কোনো কোনো কোলয়েড কণা অপরা – তড়িদ্ধর্মী আয়ন অধিশোষণ করে অপরা – তড়িদাহিত হয়।
  • তড়িৎচলন : কোলয়েড দ্রবণের মধ্যে দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ চালনা করলে আধানগ্রস্ত কোলয়েড কণাগুলি বিপরীত আধানযুক্ত তড়িদ্দ্বারের দিকে ছুটে যায়। কোলয়েড কণার এরূপ চলনকে তড়িৎচলন বলে।
  • ব্যাপন ধর্ম : কোলয়েডীয় দ্রবণের কণাগুলির ব্যাপন খুব ধীর গতিতে ঘটে।

 

প্রলম্বন কী ? /what is Suspension

প্রলম্বন (Suspension): একটি পদার্থ (সাধারণত কঠিন) অপর একটি পদার্থের মধ্যে (সাধারণত তরল) 10-5 সেমি -এর অধিক ব্যাসবিশিষ্ট কণারূপে বিভাজিত হয়ে বিস্তৃত থাকলে যে অসমসত্ত্ব এবং অস্থায়ী মিশ্রণ তৈরি করে, তাকে প্রলম্বন বলে। বর্ষাকালে খাল – বিলের জল।

প্রলম্বনের বৈশিষ্ট্যগুলি নিম্নরূপ :

  • দ্রবণের প্রকৃতি : প্রলম্বন অস্বচ্ছ ও অসমসত্ত্ব প্রকৃতির হয়।
  • দ্রাব কণার আকার : প্রলম্বনের কণাগুলির ব্যাস > 10-5 হয়। কণাগুলি অণুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে , আবার কখনো খালি চোখেও দৃশ্যমান হয়।
  • কণাগুলির ভেদ্যতা : প্রলম্বনের কণাগুলির আকার বড়ো হওয়ায় কণাগুলি সাধারণ ফিলটার কাগজ কিংবা পার্চমেন্ট কাগজের মধ্যে দিয়ে যেতে পারে না।

 

Share this

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram

Related Posts

Comment us

1 thought on “কোলয়েডীয় দ্রবণ | প্রকৃত দ্রবণ | প্রলম্বন কি?”

  1. Pingback: টিন্ডাল প্রভাব কি? | টিন্ডাল প্রভাব দেখা যায় কোন দ্রবণে – Studious

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Facebook Page