Skip to content

অনুঘটক কি? | ক্যাটালিস্ট কি | অনুঘটকের বৈশিষ্ট্য

অনুঘটক বা ক্যাটালিস্ট কাকে বলে? অনুঘটকের প্রকারভেদ, অনুঘটকের কাজ

হ্যালো বন্ধুরা আজ আমরা আলোচনা করবো রসায়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আজ আমরা আলোচনা করবো – অনুঘটক কি বা অনুঘটক কাকে বলে?, অনুঘটকের উদাহরণ, অনুঘটকের প্রকারভেদ গুলি কি কি?, অনুঘটকের বৈশিষ্ট্য গুলি কি কি?, ইত্যাদি। সুতরাং শুরু করা যাক।

অনুঘটক বা ক্যাটালিস্ট কাকে বলে?

যে পদার্থ, কোনাে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় শুধুমাত্র উপস্থিত থেকে বিক্রিয়ায় প্রয়ােজনীয় সক্রিয়করণ শক্তি ( Activation energy ) পরিবর্তন করে বিক্রিয়ার গতিবেগকে প্রভাবিত করে অর্থাৎ বিক্রিয়াটির গতিবেগ বাড়ায় বা কমায়, কিন্তু বিক্রিয়া শেষে যার কোনাে রাসায়নিক পরিবর্তন হয় না , সেই পদার্থকে অনুঘটক বা প্রভাবক বলে।

সক্রিয়করণ শক্তি : কোনাে বিক্রিয়ার সূচনাহেতু যে ন্যূনতম শক্তির প্রয়ােজন হয় , তাকে সক্রিয়করণ শক্তি বলে।

অনুঘটকের বৈশিষ্ট্য:

(1) অনুঘটক রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে , কিন্তু বিক্রিয়া শেষে আবার তাকে ফিরে পাওয়া যায়।

(2) অনুঘটক রাসায়নিক বিক্রিয়ায় বেগ বারায় বা হ্রাস করে। পরা প্রভাবক বা পজিটিভ ক্যাটালিস্ট বেগ বাড়ায় এবং অপরা প্রভাবক বা নেগেটিভ ক্যাটালিস্ট বেগ কমায়।

(3) এমন কোনাে অনুঘটক হয় না যা সব বিক্রিয়ার বেগ বাড়াতে পারবে।

(4) কোনাে বিক্রিয়ায় কোন অনুঘটক উপযােগী হবে তা পরীক্ষা করে বার করতে হয় , বিক্রিয়ার সমীকরণ দেখেই বলা যায় না।

অনুঘটক বা প্রভাবকের প্রকারভেদ:

অনুঘটক বা প্রভাবক কে সাধারণত তিন ভাগে ভাগ করা হয়। সেগুলি হলো:-

1) পরা অনুঘটক বা পজিটিভ ক্যাটালিস্ট।

2) অপরা অনুঘটক বা নেগেটিভ ক্যাটালিস্ট।

3) স্বয়ং অনুঘটক বা অটো ক্যাটালিস্ট।

পরা অনুঘটক কি বা পজিটিভ ক্যাটালিস্ট (Positive Catalyst) :

যে সকল অনুঘটক সক্রিয়করণ শক্তি কমিয়ে, কোনাে রাসায়নিক বিক্রিয়ার বেগ বৃদ্ধি করে তাকে পরা অনুঘটক বা পজিটিভ ক্যাটালিস্ট বলে।

যেমন — ম্যাঙ্গানিজ ডাইঅক্সাইড ( Mn02), নিকেল চূর্ণ ( Ni ), প্ল্যাটিনাম চূর্ণ ( Pt ), প্যালাডিয়াম চূর্ণ ( Pd ) ইত্যাদি।

ব্যাখ্যা: পটাশিয়াম ক্লোরেট থেকে অক্সিজেন উৎপন্ন করতে গেলে 630°C উষ্ণতার প্রয়োজন। সেখানে ম্যাঙ্গানিজ ডাই অক্সাইড এবং পটাশিয়াম ক্লোরেট কে মাত্র 200°C-250°C উষ্ণতায় উত্তপ্ত করলে অক্সিজেন উৎপন্ন হয়। এক্ষেত্রে ম্যাঙ্গানিজ-ডাই অক্সাইড ধনাত্মক অনুঘটকরূপে কাজ করে।

2KClO3 + [ MnO2 + তাপ প্রয়োগ ]→ 2KCl+O2

অপরা অনুঘটক কি বা নেগেটিভ ক্যাটালিস্ট কি (Negative catalyst)

যে সকল অনুঘটক সক্রিয়করণ শক্তি বাড়িয়ে , কোনাে রাসায়নিক বিক্রিয়ার বেগ হ্রাস করে তাকে অপরা অনুঘটক বা নেগেটিভ ক্যাটালিস্ট বলে।

যেমন — হাইড্রোজেন পারক্সাইড ( H2O2 ), সালফিউরিক অ্যাসিড ( H2SO4 ) , অর্থো – ফসফরিক অ্যাসিড ইত্যাদি।

ব্যাখ্যা: হাইড্রোজেন পার অক্সাইডের বিয়োজনে অল্প পরিমাণ গ্লিসারিন যোগ করলে এর বিয়োজনের বেগ হ্রাস পায়।

2H2O2 + [ গ্লিসারিন ]→ 2H2O+O2

স্বয়ং অনুঘটক কি বা অটো ক্যাটালিস্ট কি (Auto Catalyst)

কোনাে কোনাে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় বিক্রিয়ক অথবা বিক্রিয়াজাত কোনাে একটি পদার্থ অনুঘটকের কাজ করে বিক্রিয়ার গতিকে প্রভাবিত করে। এদের স্বয়ং অনুঘটক বা অটো ক্যাটালিস্ট (Auto Catalyst)।

যেমন — পটাশিয়াম পারম্যাঙ্গানেট এবং অক্সালিক অ্যাসিড ও সালফিউরিক অ্যাসিডের মিশ্রণে উৎপন্ন MnSo4 , এই প্রশমন বিক্রিয়ায় স্বয়ং অনুঘটকের ভূমিকা পালন করে।

অনুঘটক বিষ বা প্রভাবক বিষ বলে?

যে পদার্থের উপস্থিতিতে কোনাে নির্দিষ্ট অনুঘটকের ক্ষমতা কমে যায় বা সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে যায়, সেই পদার্থকে অনুঘটক বিষ বলে।

যেমন — আর্সেনিক অক্সাইড , হাইড্রোজেন সালফাইড ( HS ) , বেরিয়াম সালফেট ( Bas0 ) ইত্যাদি।

অনুঘটক উদ্দীপক কাকে বলে?

যে পদার্থকে অনুঘটকের সাথে মেশালে অনুঘটকের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায় তাকে উদ্দীপক বলে। যেমন— মলিবডেনাম ( Mo )।

অনুঘটক এর প্রয়ােজনীয়তা উল্লেখ করাে।

অনুঘটকের প্রয়ােজনীয়তাগুলি হল—

1) কোনাে বিক্রিয়া ঘটানাের জন্য অনুঘটক ব্যবহার করলে বাইরে থেকে কম তাপশক্তি প্রয়ােগ করতে হয়। ফলে জ্বালানির সাশ্রয় হয় ও খরচ কম হয়।

2) কিছু কিছু রাসায়নিক পদার্থের শিল্প প্রস্তুতিতে অনুঘটক ব্যবহার করলে। কম সময়ে বেশি পণ্য উৎপন্ন করা সম্ভব হয়। ফলে বাণিজ্যিক দিক থেকে লাভজনক হয়।

3) কোনাে কোনাে ক্ষেত্রে অনুঘটক বিক্রিয়ার বেগ হ্রাস করে পদার্থের বিয়ােজনের বেগ কমিয়ে দেয় । ফলে পদার্থের স্থায়িত্ব বাড়ে।

শিল্পে অনুঘটকের দুটি ব্যবহার উল্লেখ করাে।

(1) অসওয়াল্ড পদ্ধতিতে নাইট্রিক অ্যাসিডের শিল্প প্রস্তুতিতে অ্যামােনিয়ার জারণে প্ল্যাটিনাম তারজালি অনুঘটক রূপে ব্যবহৃত হয়।

(2) স্পর্শ পদ্ধতিতে সালফিউরিক অ্যাসিডের শিল্প প্রস্তুতির সময় সালফার ডাইঅক্সাইডের জারণে প্ল্যাটিনাম চূর্ণ বা ভ্যানাডিয়াম পেন্টাক্সাইড ( V2O5) অনুঘটকরূপে ব্যবহৃত হয়।

সুতরাং এই post টির মধ্যে আজ আমরা জানলাম অনুঘটক কি, অনুঘটক কাকে বলে?, অনুঘটকের শিল্প ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয়তা কি ইত্যাদি।

Share this

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram

Related Posts

Comment us

2 thoughts on “অনুঘটক কি? | ক্যাটালিস্ট কি | অনুঘটকের বৈশিষ্ট্য”

  1. Pingback: তাপ সঞ্চালন কাকে বলে? | তাপ সঞ্চালনের কয়টি প্রক্রিয়া ও কি কি – Studious

  2. Pingback: আইসোটোপ (Isotope) কাকে বলে? | আইসোবার | আইসোটোন – Studious

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Facebook Page