Skip to content

রেড ডাটা বুক কি | রেড ডাটা বুক প্রকাশের উদ্দেশ্য 

রেড ডাটা বুক কি

নমস্কার প্রিয় পাঠকেরা আমরা জীবন বিজ্ঞানের পাতায় নিশ্চয় রেড ডাটা বুক ( Red Data Book), গ্রিন ডাটা বুক (Green Data Book) সমন্ধে পড়েছি। আজ আমরা জানবো রেড ডাটা বুক কাকে বলে?, রেড ডাটা বুক প্রকাশের উদ্দেশ্য কি কি, রেড ডাটা বুকের ধাপ বা পর্যায় গুলি কি কি ইত্যাদি।

রেড ডাটা বুক ( Red Data Book) কি?

রেড ডাটা বুক (Red Data Book): পৃথিবীর বিলুপ্ত বা বিপদগ্রস্ত উদ্ভিদ ও প্রাণীর তথ্য সমন্বিত পুস্তককে রেড ডাটা বুক বলে। WWF ( World Wildlife Fund) – এর সহযোগিতায় 1963 খ্রিস্টাব্দে IUCN (International Union for the Conservation of Nature and Natural Resources) প্রথম বইটি প্রকাশ করে। পরবর্তীকালে আন্তর্জাতিক প্রকৃতি সংরক্ষণ সংস্থা (International Union for the Conservation of Nature and Natural Resources) বা IUCN কেবলমাত্র লুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণীর নাম তালিকাভুক্ত করে প্রকাশ করে।

রেড ডাটা বুক প্রকাশের উদ্দেশ্য 

1) বিপদগ্রস্ত উদ্ভিদ ও প্রাণীদের প্রয়োজনীয়তা সম্বন্ধে জনসাধারণের চেতনা বাড়ানো।

2) বিপন্ন ও বিপন্নপ্রায় প্রাণীদের শনাক্তকরণ, সংরক্ষণ ও তাদের বিবরণ দেওয়া।

3) জীববৈচিত্র্য হ্রাস প্রসঙ্গে তত্ত্ব ও তথ্য প্রকাশ করা। 4) স্থানীয় স্তরে সংরক্ষণকে অগ্রাধিকার দেওয়া ও জনসাধারণকে সংরক্ষণে সহযোগিতা করার জন্য আগ্রহী করে তোলা।

আরও পড়ুন:

রেড ডাটা বুকের ধাপ বা পর্যায় গুলি কি কি

বিলুপ্ত ও বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির অবস্থানিক মান প্রকাশের জন্য রেড ডাটা বুকে 4 রকমের ধাপ বা পর্যায় ব্যবহৃত হয়। ধাপগুলি উদ্ভিদ ও প্রাণী উভয়ের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।

ধাপ বা পর্যায়গুলি হল – (i) বিলুপ্ত ; (ii) বন্য পরিবেশে বিলুপ্ত ; (iii) অতিসংকটাপন্নভাবে বিপন্ন ; (iv) বিপন্ন ; (v) বিপদগ্রস্ত ; (vi) কম বিপদগ্রস্ত ; (vii) তথ্য অসম্পূর্ণ এবং (viii) বিপদমুক্ত।

Share this

Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram

Related Posts

Comment us

1 thought on “রেড ডাটা বুক কি | রেড ডাটা বুক প্রকাশের উদ্দেশ্য ”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Facebook Page